ছাগল ভেড়ার পিপিআর রোগ নিয়ন্ত্রন ও মৃত্যুর হার কমানো গেলে গ্রামীন জনগোষ্ঠীর আয় বৃদ্ধি পাবে -এমপি গোপাল

প্রিয় দিনাজপুর

বীরগঞ্জ (দিনাজপুর) প্রতিনিধিঃ বাংলাদেশের অতি গুরুত্বপূর্ণ পশুসম্পদ ছাগল-ভেড়া। যেটি দরিদ্র জনগোষ্ঠীর আয়ের অন্যতম প্রধান উৎস। আর ছাগল ভেড়ার পিপিআর একটি মারাত্মক রোগ। এই রোগ নিয়ন্ত্রন এবং মৃত্যুর হার কমানো গেলে গ্রামীন জনগোষ্ঠীর আয় বৃদ্ধি পাবে, গ্রামীন অর্থনীতি সমৃদ্ধ হবে। পাশাপাশি নতুন নতুন কর্মসংস্থানের ক্ষেত্র তৈরি হবে। এছাড়া বাংলাদেশে বেকার সমস্যা ও দারিদ্র্য হ্রাস, মাংস উৎপাদন বৃদ্ধি ও বৈদেশিক মূদ্রা অর্জনের ক্ষেত্রে ছাগল-ভেড়া অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।

২১ অক্টোবর ২০২০ বুধবার সকালে বীরগঞ্জ উপজেলা প্রাণীসম্পদ দপ্তরের আয়োজনে উপজেলার সুজালপুর ইউনিয়নের জগদল উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে বিনামূল্যে পিপিআর রোগের টিকা প্রদানের উদ্বোধনকালে প্রধান অতিথির বক্তব্যে দিনাজপুর-১ আসনের সংসদ সদস্য মনোরঞ্জন শীল গোপাল এসব কথা বলেন।

আয়োজকরা জানান, প্রাণীসম্পদ অধিদপ্তরের পিপিআর রোগ নির্মূল ও ক্ষুরারোগ নিয়ন্ত্রণ প্রকল্পের আওতায় দেশব্যাপী ছাগল ও ভেড়ার পিপিআর রোগ নির্মূলের লক্ষ্যে বীরগঞ্জ উপজেলায় ২১ অক্টোবর ২০২০ হতে আগামী ৩ নভেম্বর ২০২০ পর্যন্ত ৩০৬টি ভ্যাকসিনেশন ক্যাম্পে ৮৯ হাজার ৯শ ৫৫টি ছাগল ভেড়াকে পিপিআর রোগের টিকা প্রদান করা হবে।

অনুষ্ঠানে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. আব্দুল কাদের এর সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন জেলা প্রাণীসম্পদ কর্মকর্তা ডা. মো. শাহীনুর আলম, বীরগঞ্জ থানার ওসি আব্দুল মতিন প্রধান, জেলা পরিষদের সদস্য মো. আতাউর রহমান বাবু, উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক মো. শামিম ফিরোজ আলম। এছাড়া অন্যান্যদের মধ্যে ভেটেরিনারি সার্জন ডা. মো. ইউনুস আলীসহ বিভিন্ন প্রকল্পের কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *