অসামাজিক কাজে লিপ্ত জেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান সহ ২ যুবতি: আটক ৬ জন

দেশজুড়ে প্রিয় দিনাজপুর

দিনাজপুর জেলা প্রতিনিধি

দিনাজপুরে পতিতা ও মাদকসহ জেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান সফিকুর রহমান নেতা (৪৮)কে আটক করেছে কোতয়ালী থানা পুলিশ। এসময় তার সঙ্গে জেলা পরিষদের ১ সদস্য, ২ পতিতাসহ আরও ৫ জনকে আটক করা হয়।

শনিবার (৮ আগস্ট) রাত ৮টায় দিনাজপুর জেলা পরিষদের ভিআইপি ডাকবাংলো থেকে তাদের আটক করা হয়। রোববার (০৯ আগস্ট) বিকেলে আটককৃত ৬ জনকে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়।

আটক প্যানেল চেয়ারম্যান সফিকুর রহমান নেতা পার্বতীপুর উপজেলার নতুন বাজার এলাকার মৃত দেলোয়ার হোসেনের ছেলে ও জেলা পরিষদের ১০নং ওয়ার্ডের সদস্য।

অভিযানে আটক অপর ৩ জন হলেন- জেলা পরিষদের ৯নং ওয়ার্ডের সদস্য ও চিরিরবন্দর উপজেলার থানাপাড়ার জালাল উদ্দিন সরকারের ছেলে মোস্তাফিজুর রহমান (৪৬), চিরিরবন্দর উপজেলার আউলিয়াপুর ইউপির ৯নং ওয়ার্ডের সদস্য ও মহাদানীপুর গ্রামের ইদ্রিস আলীর ছেলে মহির উদ্দিন কাশেম (৩৩) এবং চিরিরবন্দর উপজেলার বাসুদেবপুর গ্রামের আব্দুল মজিদ সরকারের ছেলে জাহেদুল সরকার (৩৬)।

দিনাজপুর কোতয়ালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোজাফ্ফর হোসেন জানান, শনিবার রাত ৮টায় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে কোতয়ালী থানার পরিদর্শক (অপারেশন) মোঃ আসাদুজ্জামানের নেতৃত্বে একটি অভিযান পরিচালনা করা হয়। অভিযান চলাকালে দিনাজপুর জেলা পরিষদের ভিআইপি ডাকবাংলোর ২য় তলার ১টি রুম থেকে মাদকদ্রব্য ও ২ পতিতাসহ তাদের আটক করা হয়। এসময় ৭ বোতল ফেন্সিডিল, ৫টি খালি মদের বোতল, ইয়াবা সেবনের উপকরণ ও গ্যাস লাইন উদ্ধার করা হয়।

দিনাজপুর কোতয়ালী থানার পরিদর্শক (এসআই) জাহিদুল ইসলাম বাদী হয়ে মাদক সেবন ও মাদকদ্রব্য রাখার অভিযোগে আটক প্যানেল চেয়ারম্যান সফিকুর রহমান নেতা, সদস্য মোস্তাফিজুর রহমান, ইউপি মেম্বার মহির উদ্দিন কাশেম, এবং জাহেদুল সরকারের বিরুদ্ধে ১টি মামলা দায়ের করেছেন। এছাড়াও অসামাজিক কার্যকলাপে জড়িত থাকার ২ পতিতাসহ আটককৃত ৬ জনের বিরুদ্ধে একটি নিয়মিত মামলা দায়ের করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *