দিনাজপুরের বীরগঞ্জে ৫ম শ্রেনীর ছাত্রীকে ধর্ষণের দায়ে একজনের যাবজ্জীবন কারাদন্ড

প্রিয় দিনাজপুর বাংলাদেশ

শিমুল, দিনাজপুর জেলা প্রতিনিধিঃ ১৪ অক্টেবর বুধবার দুপুরে দিনাজপুর জেলা দায়রা জজ আদালতে দিনাজপুর বীরগঞ্জে ৫ম শ্রেনীর ছাত্রীকে ধর্ষণের দায়ে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আদালতের বিচারক শরিফ উদ্দীন আহম্মেদ আসামী রবি সরেন(২২) নামে একজন আদিবাসী যুবককে যাবজ্জীবন কারাদন্ড দিয়েছেন।

দিনাজপুর জেলা দায়রা জজ আদালত সুত্রে জানা যায় ২০১৫ সালের ২সেপ্টেম্বর বীরগঞ্জ উপজেলার মৌ গ্রামের আদিবাসী যুবক রবি সরেন ৫ম শ্রেনীর ছাত্রীকে লোভ দেখিয়ে ধর্ষণ করে।

এ ঘটনায় মেয়ের বাবা মদন মহন রায় বীরগঞ্জ থানায় একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন। দীর্ঘ শুনানী শেষে আজ নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আদালতের বিচারক শরিফ উদ্দীন আহম্মেদ আসামীকে যাবজ্জীবন কারাদন্ড ১০ হাজার টাকা জরিমানা করেন।

দিনাজপুর আদালত পুলিশের পরিদর্শক ইসরাইল হোসেন জানান, ২০১৫ সালেরে ২ সেপ্টেম্বর দুপুরে রবি সরেন পঞ্চম শ্রেণির এক ছাত্রীকে নিজ বাড়িতে নিয়ে ধর্ষণ করেন। এসময় মেয়েটির চিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে এলে রবি সরেন পালিয়ে যান। পরদিন মেয়েটির বাবা বাদী হয়ে রবি সরেনের বিরুদ্ধে ধর্ষণের মামলা করেন। এরপর বীরগঞ্জ থানা-পুলিশ রবি সরেনকে আটক করে।

একই বছরের ২২ সেপ্টেম্বর বীরগঞ্জ থানার তৎকালীন উপপরিদর্শক (এসআই) আমজাদ হোসেন প্রধান মামলাটি তদন্ত করে রবি সরেনের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র পেশ করেন। ১০জন সাক্ষীর সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে আজ বুধবার এ রায় দেয়া হয়।

রাষ্ট্রপক্ষে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিশেষ পিপি (সরকারি কৌঁসুলি) তৈয়বা বেগম ও আসামি পক্ষে মোঃ মোকলেসুর রহমান দুলাল মামলা পরিচালনা করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *