দিনাজপুর ঘোড়াঘাট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে হাতুরী দিয়ে পিটিয়ে আহত করেছে দুস্কৃতকারী

প্রিয় দিনাজপুর

শিমুল, দিনাজপুর জেলা প্রতিনিধি :

দিনাজপুর ঘোড়াঘাট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ওয়াহিদা খানম ও তার পিতা বীর মুক্তিযোদ্ধা ওমর আলী শেখ দুস্কৃককারীর দ্বারা গুরুত্বও আহত হয়েছেন। আহত ইউএনও ওয়াহিদা খানমের ৩ বছরের শিশু বাঁচ্চা রয়েছে।

গেল রাত আনুমানিক রাত ৩টায় তার সরকারী বাসভবনের ভেন্টিলেটর ভেঙ্গে ভিতরে ঢুকে বাবা এবং মেয়েকে হাতুড়ী দিয়ে আঘাত করে। গুরুত্বও আহত নির্বাহী কর্মকর্তা ওয়াহিদা খানমকে সঙ্গে সঙ্গে রংপুরে চিকিৎসার জন্য নিয়ে যাওয়া হয়েছে। ঘটনার পর জেলা প্রশাসক মাহমুদুল আলমসহ পুলিশের উদ্ধতন কর্মকতার ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

ঘোড়াঘাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আমিরুল ইসলাম জানান, ধারনা করা হচ্ছে রাত আনুমানিক ৩টার দিকে নির্বাহী কর্মকতার বাসভবনের দ্বিতলায় বাথরুমের ভেন্টিলেটর ভেঙ্গে ভিতরে ঢুকে। ঘটনাস্থলে নীচে একটি মই পাওয়া গেছে। প্রথমে নির্বাহী কর্মকর্তার বাবাকে আহত করে বাথরুমে আটকিয়ে রাখে। এর পর নির্বাহী কর্মকর্তা ওয়াহিদা খান কে হাতুড়ী দিয়ে পিটিয়ে গুরুত্বর আহত করে। বাসভবনে নাইটগার্ড কে নীচে তালা দিয়ে আটকিয়ে রাখে। কাজের মেয়ে নীচে ছিল।

দুস্কৃতকারী ১/২ জন থাকতে পারে। তবে পুলিশ জানিয়েছে এটি কোন ডাকাতি ছিলনা। সম্ভবত হত্যার উদ্ধেশ্য ছিল। জানা গেছে, দিনাজপুর ঘোড়াঘাট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ওয়াহিদা খানম এর স্বামী রংপুর জেলার পীরগঞ্জ উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা মেজবাহুল হোসেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *