বরিশালে অভ্যন্তরীণ লঞ্চ চলাচল বন্ধ, চলছে দূরপাল্লার

দেশজুড়ে

অনলাইন ডেস্ক:

দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়ার কারণে বরিশালের অভ্যন্তরীণ নৌপথে লঞ্চ চলাচল বন্ধ রাখা হয়েছে। তবে বরিশাল-ঢাকা নৌপথে লঞ্চ চলাচল স্বাভাবিক রয়েছে।

আবহাওয়া অধিদফতর সমুদ্রবন্দরগুলোকে ৩ নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত এবং নদীবন্দরে ২ নম্বর সতর্ক সংকেত দেখাতে বলায় দুর্ঘটনার আশঙ্কায় বৃহস্পতিবার (২০ আগস্ট) দুপুর থেকে অভ্যন্তরীণ সব ধরনের লঞ্চ চলাচল বন্ধ রয়েছে। এতে করে চরম দুর্ভোগে পড়েছেন যাত্রীরা।

বিআইডব্লিউটিএর বরিশাল কার্যালয়ের যুগ্ম পরিচালক আজমল হুদা মিঠু বলে বলেন, দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়ার কারণে নদী উত্তাল থাকায় অভ্যন্তরীণ লঞ্চ চলাচল বন্ধ রাখা হয়েছে। তাই দুপুরের পর বরিশাল নদীবন্দর থেকে অভ্যন্তরীণ ১২ রুটের কোনো নৌযান ছেড়ে যায়নি। আবহাওয়ার পরবর্তী নির্দেশনা না পাওয়া পর্যন্ত এ নিষেধাজ্ঞা জারি থাকবে। তবে বিশেষ সতর্কতার সাথে বরিশাল-ঢাকা নৌপথে বড় লঞ্চ চলাচল করতে বলা হয়েছে।

বরিশাল নৌ সদর থানা পুলিশের ইনচার্জ পরিদর্শক মো. আব্দুল্লাহ আল মামুন জানান, বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআইডব্লিউটিএ) নিষেধাজ্ঞা জারির পর নদীবন্দর থেকে অভ্যন্তরীণ নৌপথের কোনো লঞ্চ ছাড়তে দেয়া হয়নি। অভ্যন্তরীণ নৌপথের যাত্রীদের বন্দর থেকে ফিরিয়ে দেয়া হয়েছে। তবে বরিশাল-ঢাকা নৌপথে বড় লঞ্চ চলাচলে নিষেধাজ্ঞা ছিল না। এ কারণে বরিশাল-ঢাকা নৌপথে লঞ্চ চলাচল স্বাভাবিক রয়েছে। রাত সাড়ে ৮টার পর বরিশাল নদীবন্দর থেকে বিশাল আকারের ছয়টি লঞ্চ ঢাকার উদ্দেশ্যে ছেড়ে গেছে।

এদিকে অভ্যন্তরীণ লঞ্চ চলাচল বন্ধ থাকায় যাত্রীদের চরম ভোগান্তিতে পড়তে হয়েছে। অনেকেই লঞ্চ চলাচলে নিষেধাজ্ঞার বিষয়ে কিছুই জানতেন না। তারা দীর্ঘক্ষণ নদীবন্দরে অপেক্ষার পর ফিরে গেছেন। কেউ কেউ ট্রলারে করে ঝুঁকি নিয়ে গন্তব্যে যান।

বরিশাল আবহাওয়া অফিস সূত্রে জানা গেছে, উত্তর পশ্চিম বঙ্গোপসাগর, বাংলাদেশ ও পশ্চিমবঙ্গে অবস্থানরত লঘুচাপটি উড়িষ্যা ও পশ্চিমবঙ্গের উপকূলে সুস্পষ্ট লঘুচাপ হিসেবে অবস্থান করছে। লঘুচাপের প্রভাবে দেশের উপকূলীয় এলাকা এবং সমুদ্রবন্দরগুলোর ওপর দিয়ে ঝড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে।

চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মোংলা ও পায়রা সমুদ্রবন্দরকে ৩ নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে। পাশাপাশি বরিশাল, খুলনা, পটুয়াখালী, নোয়াখালী, কুমিল্লা, চট্টগ্রাম এবং কক্সবাজার অঞ্চলের ওপর দিয়ে দক্ষিণ বা দক্ষিণ-পশ্চিম দিক থেকে ঘণ্টায় ৬০ থেকে ৮০ কিলোমিটার বেগে বৃষ্টি বা বজ্রবৃষ্টিসহ অস্থায়ীভাবে দমকা বা ঝড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে।

এসব এলাকার নদীবন্দরকে ২ নম্বর নৌ হুঁশিয়ারি সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে। উত্তর বঙ্গোপসাগরে অবস্থানরত মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারগুলোকে পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত উপকূলের কাছাকাছি থেকে সাবধানে চলাচল করতে বলা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *