লজ্জা ভেবে নিপীড়নের কথা শিকার করে না পুরুষরা

আন্তর্জাতিক

অনলাইন ডেস্ক

নারী নির্যাতনের কথা হরহামেশাই শোনা যায়। এ সংখ্যা এত বেশি যে তার সঠিক পরিসংখ্যান নিয়েও সন্দেহ থেকে যায়। তবে জার্মান এক বিশেষজ্ঞ বলছেন, পারিবারিক সহিংসতা বা গৃহনিপীড়নের শিকার নারী একাই নয় বহু পুরুষকেও এর শিকার হতে হয়। তবে বিষয়টিকে লজ্জার মনে করে পুরুষরা তা প্রকাশ করে না।

এই গবেষক আরও বলছেন, সরকারি পরিসংখ্যানের তুলনায় পুরুষেরা অনেক বেশি গৃহ নিপীড়নের শিকার হয়ে থাকে। এসব বলেছেন, জার্মানির রস্টক বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিষয়ক চিকিৎসক ভেরেনা কলবে।

জার্মান ক্রিমিনাল পুলিশ অফিসের পরিসংখ্যান থেকে জানা যায়, ২০১৮ সালে ৩২৪ জন নারী এবং ৯৭ জন পুরুষ তাদের সাবেক পার্টনারের হত্যার শিকার হন। সেবছরই সারা জার্মানি জুড়ে প্রায় ২৬ হাজার পুরুষ ও এক লাখ ১৪ হাজার নারী গৃহনিপীড়নের শিকার হন।

গৃহনিপীড়নের শিকার পুরুষদের বেশিরভাগই নিজেদের পার্টনারকে পূর্বে গৃহ নির্যাতন করেছে এবং এদের ৪০ শতাংশ শৈশবে নির্যাতনের শিকার হয়েছে। পুরুষদের ঘরোয়া সহিংসতার চিহ্ন অনুসন্ধান করার জন্য জরুরি সেবা, ইমারজেন্সি চিকিৎসকদের প্রতি আহ্বান জানিয়ে কলবে বলেন, প্রয়োজনে পুরুষেরা নারীদের মতোই সাহায্য সহযোগিতা পাবেন। গৃহনিপীড়ন রোধ করতে ক্ষতিগ্রস্ত পুরুষ এবং সংস্লিষ্ট ডাক্তারদের জন্য বিশেষ প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করা উচিত বলেন কলবে৷ এসব তথ্য প্রকাশ পায় জার্মান মেডিকেল জার্নালে। সূত্র : ডয়েচে ভেলে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *