শেখ হাসিনার ৭৪তম জন্মদিন উপলক্ষ্যে দিনাজপুর স্বেচ্ছাসেবক লীগের উদ্যোগে শিক্ষা উপকরণ বিতরণ

প্রিয় দিনাজপুর

শিমুল, দিনাজপুর জেলা প্রতিনিধি: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৪তম জন্মদিন উপলক্ষ্যে আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগ দিনাজপুর জেলা, শহর ও সদর উপজেলা শাখার উদ্যোগে দরিদ্র ও মেধাবী শিক্ষার্থীদের মাঝে শিক্ষা উপকরণ বিতরণ করা হয়েছে। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. ইমদাদ সরকার।

২৯ সেপ্টেম্বর মঙ্গলবার দিনাজপুর শহরের কালিতলা সোনাপীর গোরস্থান দারুল উলুম কাওমী মাদ্রাসা প্রাঙ্গণে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৪তম জন্মদিন উপলক্ষ্যে আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগ দিনাজপুর জেলা, শহর ও সদর উপজেলা শাখার উদ্যোগে দরিদ্র ও মেধাবী শিক্ষার্থীদের মাঝে শিক্ষা উপকরণ বিতরণ অনুষ্ঠানে জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সহ-সভাপতি আল মামুন সরকার এর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথির বক্তব্যে সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ইমদাদ সরকার বলেন, কওমি মাদ্রাসার স্বীকৃতি প্রদানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শুরু থেকেই আন্তরিক ছিল। ২০০৯ সালে আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতা গ্রহণের পর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আলেমদের কাছে স্বীকৃতি দেয়ার ওয়াদা করেছিলেন। বহু চড়াই-উতরাই পেরিয়ে তিনি তার ওয়াদা পূর্ণভাবে রক্ষা করেছেন। সে সময় অনেকেই কওমি সনদের বিরোধিতা করেছিল। কিন্তু প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ছিলেন তার কথায় অটল অবিচল। স্বীকৃতি দেয়ার ক্ষেত্রে কোনো বাধা শেখ হাসিনাকে টলাতে পারেনি।

তিনি বলেন, ধর্মের মধ্যে ভাগ করা, কে ভালো, কে ভালো না আমরা জানি না। আমাদের নবী করিমও (সা.) এ কথা বলেননি। অথবা ইসলাম ধর্মও এ কথা বলেনি। আমি মনে করি আমাদের ইসলাম ধর্মে যারা বিশ্বাসী তারা যদি ইসলাম ধর্মকেই বিশ্বাস করে এবং নবী করিম (সা.)-এর বাণী যদি ধারণ করে ও মেনে চলে, তাহলে তো এই বিচারের পথে কেউ যেতে পারে না। আল্লাহ তো কোরআনে বারবার বলেছেন, শেষ বিচার আল্লাহ রাব্বুল আলামিন করবেন। সেই ধৈর্যটা আমাদের থাকবে না কেন। যারা সত্যিকার অর্থে ইসলাম ধর্ম বিশ্বাস করে তারা প্রত্যেকেই যার যার ধর্ম সেই সেই পালন করবে। কারও ধর্মে আঘাত দিয়ে কথা না বলা, মুসলমান হয়ে মুসলমানকে আঘাত না করা, অন্য ধর্মাবলম্বীদেরও আঘাত না করা, এটাই ইসলামের প্রকৃতি শিক্ষা।

জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মো. তসলিম উদ্দিন এর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন শহর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এস এম খালেকুজ্জামান রাজু ও সোনাপীর গোরস্থান দারুল উলুম কাওমী মাদ্রাসার মুহতামিম। অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সহ-সভাপতি শামীম পারভেজ সুমন, দপ্তর সম্পাদক তাইজুল ইসলাম টিটু, প্রচার সম্পাদক আরিফুল ইসলাম ডলার, সহ-প্রচার সম্পাদক সাজিবুর রহমান সজিব, শহর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি রাকিবুল হাসান সবুজ, সদর উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি মো. আব্দুস সালাম সরকার, সাধারণ সম্পাদক রাকিবুল ইসলাম রাকিব প্রমুখ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *